তাজা খবর:
Home / breaking / ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম এর জমি ভূমিদস্যুদের দখলে
ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম এর জমি ভূমিদস্যুদের দখলে

ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম এর জমি ভূমিদস্যুদের দখলে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভাষার জন্য লড়াই সংগ্রাম করে মাতৃভাষা বাংলাকে প্রতিষ্ঠিত করতে জীবনের ঝুুকি নিয়ে যারা লড়াই করেছে তাদের মতই একজন ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম। সেই ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগমের জমি ভূমিদস্যুদের দখলে। দ্বারে দ্বারে ঘুুরছে ভাষা সৈনিকের সন্তানেরা। আইনের আশ্রয় নিয়েও শেষ রক্ষা হচ্ছে না।

সরেজমিনে, স্থানীয় প্রবীণ ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের দেওয়া তথ্য মতে জানা যায, ভূমিদস্যুদের দখলকৃত অংশটুুকু পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি। আলারপুর মেৌজা জে এল নং-৬৪ উপজেলা কুলাউড়া জেলা-মেৌলভীবাজার যার খতিয়ান নং-২৫৩৩, দাগ নং-২৫০৩ জমির পরিমান ৫ একর ২৬ শতাংশ। পৌরশহরের একটি শতর্বষী ঐতিহ্যবাহী পুকুর।যা সর্ব সাধারণের জন্য উম্মুক্ত।কিন্তু ভাষা সৈনিকের জমি এখন ভূমিদস্যুদের দখলে।

কুলাউড়া থানায় ১৯/০৯/২০১৯ তারিখে একটি জিডি করা হয় জিডি নং-৯৩৮।এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করলে পরিবেশের ছাড়পত্র ব্যতীত পুকুর ভরাট করার কারণে মামলা নং- ১২৬/২০২১ এর আদেশক্রমে ১,০০,০০০/- টাকা ক্ষতিপূরণ আরোপপূর্বক সাত কর্মদিবসের মধ্যে ট্রেজারী চালানের জমা করার নির্দেশ দেন।যা পরবর্তীতে জনাব এ কে এম সাকি আহমেদ সোলমান উক্ত পরিমান টাকা ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে জমা প্রদান করে ও ভবিষ্যত এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকবে বলে মুচলেকা প্রদান করেন। কিন্তু বর্তমানে প্রশাসনের নাকের ডগায় ভূমিদস্যুরা ভাষা সৈনিকের জমি জবর দখল করচ্ছে। প্রসাশন নির্বিকার।

কুলাউড়া পৌরসভার এ এম আশরাফ আলী খান ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আশরাফ আলীর তিন কন্যা তারা তিন জনই ভাষা সৈনিক। ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু, ভাষা সৈনিক হোসনে আরা বেগম ও ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম। তিনজনই পরলোক গত। ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগম এর মৃত্যু ১৯ আগষ্ট ২০০৪, মৃত্যু কালে তার বয়স হয়ে ছিল ৬২ বছর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Close